Home Home নাটাবাড়িতে এবার রাস্তার পাশে ওস্কুলে রোপণ করা হবে ভেষজ গাছ

নাটাবাড়িতে এবার রাস্তার পাশে ওস্কুলে রোপণ করা হবে ভেষজ গাছ

SHARE

১লা জুলাই ২০২১, ওয়েভ ইন্ডিয়া বাংলা, ওয়েব ডেস্ক :-১০০ দিনের কাজ ও স্বাস্থ্যদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে কোচবিহার জেলা প্রশাসন আড়াই কিমি রাস্তার দু’ধারে ভেষজ গাছ রোপণের উদ্যোগ নিয়েছে। শুধু তাই নয়, ১০০টি স্কুলে এই ধরনের গাছ লাগানোর পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। যাতে ওইসব গাছের ডাল, পাতা, ফল আগামী দিনে বিক্রি করে সাধারণ মানুষ উপকৃত হতে পারে। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, বিভিন্ন দপ্তরের সঙ্গে সমন্বয়ে ১০০ দিনের কাজ প্রকল্পে তুঁত চাষ, বিভিন্ন ফলের চাষ, মৎস্য চাষ, সেচবাঁধ নির্মাণ সহ একাধিক উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এসব প্রকল্পের মাধ্যমে একদিকে যেমন বাসিন্দারা উপকৃত হবেন, তেমনই স্থায়ী সম্পদ সৃষ্টি হবে।

জেলার ১০০ দিনের কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক কিংশুক মাইতি বলেন, আমাদের কাছে বিভিন্ন দপ্তর থেকে নানা ধরনের কাজের পরিকল্পনা এসেছে। সেই পরিকল্পনা অনুসারে, আমরা একটি সার্বিক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। এগুলি নিয়ে খুব দ্রুত জেলাস্তরে বৈঠক হবে। তারপরই ওই প্রকল্পগুলির কাজ শুরু হবে। প্রকল্পগুলির মাধ্যমে স্থানীয়রা যেমন উপকৃত হবেন, তেমনই এলাকারও উন্নয়ন হবে। প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলার তুফানগঞ্জ-১ ব্লকের মোট ১০০টি স্কুলে ভেষজ উদ্যান গড়ে তোলা হবে। যেখানে বিভিন্ন ভেষজ গাছ থাকবে। এই গাছগুলি লাগালে স্থানীয় বাসিন্দারা এর থেকে সুবিধা পাবেন। একইভাবে নাটাবাড়ি-১ ও ২ এলাকাতে একটি রাস্তার দু’ধারে ভেষজ গাছ লাগানো হবে। এগুলির রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচর্যা করার জন্য নির্দিষ্ট ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কোন রাস্তার দু’ধারে ভেষজ গাছগুলি লাগানো হবে তা আলোচনার মাধ্যমে ঠিক করা হবে বলে প্রশাসন জানিয়েছে।

জেলায় মৎস্যদপ্তরের সঙ্গে সমন্বয়ে ১০০ দিনের কাজের মাধ্যমে বিভিন্ন এলাকায় মোট চার হাজার বিঘা পুকুর খনন করে তাতে মাছ চাষ করা হবে। এছাড়াও বিভিন্ন সংস্থাকে যুক্ত করে ফল ও সব্জি চাষ করা হবে। ৩০টি ড্রাগন ফ্রুট নার্সারি, ২০০টি ঝুলন্ত সিড বেড, পাঁচটি সুপারি ও সামাজিক বনসৃজনের নার্সরি, দু’টি সজনের নার্সারি, পোলট্রি শেড, গোট ব্রিডিং শেড, ডাক শেড, রঙিন মাছ চাষ সহ বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। উদ্যানপালন দপ্তরের সঙ্গে সমন্বয়ে ইন্ডিভিজুয়াল বেনিফিট স্কিমে ৯৪১৭ জন উপভোক্তার জন্য আপেল কুল, কলা, লিচু, পেপেবাগান স্থাপন করা হবে। সেইসঙ্গে ১৪২টি স্বনির্ভর গোষ্ঠীকে নিয়ে ড্রাগন ফ্রুটের বাগান তৈরি করা হবে। সেচদপ্তরের সঙ্গে সমন্বয়ে বন্যা নিয়ন্ত্রণের কাজ করা হবে। কৃষি, সেচদপ্তরের সঙ্গে জেলায় সাড়ে পাঁচ কিমি ফিল্ড চ্যানেল তৈরির প্রকল্প ১০০ দিনের কাজের মাধ্যমে হাতে নেওয়া হয়েছে। দপ্তরের দাবি, এসব কাজ হলে আগামী দিনে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি জেলায় প্রচুর স্থায়ী সম্পদ সৃষ্টি হবে।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here