Home Latest News চাই আরও ডাক্তার, আরও ৬টি মেডিক্যাল কলেজ পাচ্ছে রাজ্য

চাই আরও ডাক্তার, আরও ৬টি মেডিক্যাল কলেজ পাচ্ছে রাজ্য

SHARE

২৬শে জুন ২০২১, ওয়েভ ইন্ডিয়া বাংলা , ওয়েব ডেস্ক :-মানুষের জন্য চাই আরও ডাক্তার। আর সেই লক্ষ্য রাজ্য আরও মেডিক্যাল কলেজ গড়তে চলেছে রাজ্য সরকার। করোনা আবহে ডাক্তারের অভাব বারবার সামনে এসেছে। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় আরও সরকারি ছ’টি মেডিক্যাল কলেজ গড়ে ডাক্তারি পড়ার কয়েকশো আসন বাড়ানোর পথে রাজ্য সরকার। নবান্ন সূত্রে খবর, জেলায় সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল ও জেলা হাসপাতালে পঠনপাঠনের উপযুক্ত পরিকাঠামো গড়ে সেগুলিকে মেডিক্যাল কলেজের রূপ দেওয়া হচ্ছে। পরের বছরের মধ্যেই অন্তত পক্ষে দু’টি মেডিক্যাল কলেজের যাবতীয় ব্যবস্থা প্রস্তুত করে পঠনপাঠন শুরু করা হবে। সেক্ষেত্রে সামনের বছর নিট-এ ফের কয়েকশো আসন বাড়ার সম্ভাবনা। রাজ্যে আরও বেশি করে ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ আগেই দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তাই করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও প্রশাসনের কর্তারা জোরকদমে কাজ চালিয়েছেন। যাতে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব রাজ্যের ছেলেমেয়েদের এমবিবিএস পড়ার সুযোগ আরও বাড়ে। নবান্ন সূত্রে খবর, পরিকাঠামো গড়ে তোলার পাশাপাশি প্রয়োজন প্রচুর সংখ্যক চিকিৎসক। সেক্ষেত্রে ডাক্তারি পড়ার ব্যবস্থা ও পরিকাঠামো বাড়াতে হবে। সেদিকে লক্ষ্য রেখেই দ্রুত আরও ৬টি মেডিক্যাল কলেজের ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ছড়িয়ে থাকা হাসপাতালের পরিকাঠামো খতিয়ে দেখার কাজ শুরু হয়েছে।

সেই হাসপাতালগুলিকে কেন্দ্র করেই এমবিবিএস পড়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা দ্রুত তৈরি করার কথা বলা হয়েছে। যাতে ৬টির মধ্যে অন্তত তিনটিতে সামনের বছর থেকে পঠনপাঠনের কাজ শুরু করা সম্ভব হয়। যে ছ’টি জেলাকে বেছে নিয়ে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে, সেগুলি হল হাওড়ার উলুবেড়িয়া, উত্তর ২৪ পরগনার বারাসত, হুগলির আরামবাগ, পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুক, ঝাড়গ্রাম ও জলপাইগুড়ি। রাজ্যে পরিকাঠামো তৈরি করা গেলেও করোনা দেখিয়ে দিয়েছে প্রয়োজনের তুলনায় চিকিৎসকের সংখ্যায় ঘাটতি রয়েছে।

করোনার ঢেউ যখন ক্রমশ বাড়ছে, তখন চিকিৎসা ব্যবস্থা সামাল দিতে সরকার সিদ্ধান্ত নেয় যে, পাঠরত চিকিৎসক যাঁরা চূড়ান্ত বর্ষে রয়েছেন, তাঁদেরও করোনা রোগীদের চিকিৎসায় লাগানো হবে। এক সরকারি অফিসারের কথায়, রাজ্যে চিকিৎসকের ঘাটতি রয়েছে, সেটা জানা কথা। সেটা মেটাতে চান মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু একটা মেডিক্যাল কলেজ গড়ে তুলে সেখানে ডাক্তারি পড়ানোর ব্যবস্থা করতে যেমন সময় লাগবে, তেমনই সরকারের প্রচুর অর্থ ব্যয় হবে। সব দিক খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত হয়, জেলায় ছড়িয়ে থাকা বিভিন্ন সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল ও জেলা হাসপাতালে পঠনপাঠনের পরিকাঠামো তৈরি করবে সরকার। গড়া হবে ক্লাসরুম-সহ অন্যান্য ব্যবস্থা।

 

 

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here