Home Politics শহরে আগুন লাগার মূল কারণ নিয়ে এদিন সাংবাদিক বৈঠক করলেন সুজিত বোস

শহরে আগুন লাগার মূল কারণ নিয়ে এদিন সাংবাদিক বৈঠক করলেন সুজিত বোস

SHARE

১৩ই সেপ্টেম্বর ২০২১, ওয়েভ ইন্ডিয়া বাংলা , ওয়েব ডেস্ক :-বেশ কয়েক দিনের মধ্যে শহর কলকাতা এবং কলকাতা লাগোয়া জেলায় অনেকগুলি জায়গায় আগুন লাগে। তারমধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য নিমতলা ঘাট স্ট্রিট, তারাতলা এবং হুগলির ডানকুনির স্টার ব্যাটারি। এই তিনটে জায়গায় কিছুদিন আগে আগুন লাগে ।আগুন লাগার কারণ কি এবং তার রিপোর্ট কি বলছে তা নিয়ে এদিন একটি বৈঠক করেন দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু ।তার পরেই তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। তিনি জানিয়েছেন আজকের বৈঠকে বেশকিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যার মধ্যে অন্যতম হলো এই তিনটে জায়গায় যেখানে মূলত আগুন লাগে এবং যার ভয়াবহতা মারাত্মক হয়েছিল।

তার কারণ জানতে চাওয়া হয়েছে ।প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী একটি রিপোর্ট পাওয়া যায় কিন্তু মূল কারণ কি তা জানার জন্য ফরেনসিক রিপোর্ট এর জন্য অপেক্ষা করতে হয়। আগামী রবিবারের মধ্যে যেন এসে পৌঁছায় তার জন্য বলা হয়েছে ।এই আগুন লাগার পিছনে কারণ গুলি রয়েছে তা এদিন সুজিত বোস উল্লেখ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন মূলত বেশিরভাগ গুদামঘর গুলিতে ফায়ার লাইসেন্স নেই। তার পাশাপাশি যে সমস্ত অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র রয়েছে সেগুলো সঠিক নয়। বারবার করে সমস্ত জায়গায় সাধারণ মানুষও ব্যবসায়ীকে বলার পরও তারা এই কাজ গুলো সঠিক ভাবে করছেন না। এদিকে সরকারের পক্ষ থেকে ফায়ার লাইসেন্স অনেক কমিয়ে দেওয়া হয়েছে অন্যদিকে গুদামঘরের বাড়াও অনেক কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার সত্ত্বেও মানুষ এগুলোতে কাজ করছেন না ।এর ফলে সে গুদামঘর গুলিতে দাহ্য পদার্থ রাখছেন এবং সেখান থেকে শর্ট সার্কিট বা অন্য কিছুর মাধ্যমে আগুন লেগে যাচ্ছে।

অনেক মানুষের প্রাণহানি ও হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন। সেগুলো যাতে আর না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে এবং এই বিষয়ে তিনি ইতিমধ্যে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন এবং যাদের এই রিপোর্টে নাম উল্লেখ থাকবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন ।বারবার করে সমস্ত ব্যবসায়ী এবং যারা এই কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাদেরকে বলা হয়েছে তারা যেন এই নিয়ম গুলি মেনে চলেন তাহলে এইরকম বড় বিপদ হয়তো আর ঘটবে না বলেও তিনি জানিয়েছেন। তবে এখন সবকিছু নির্ভর করছে ফরেনসিক রিপোর্ট এর উপর। ফরেনসিক রিপোর্ট খুব তাড়াতাড়ি এসে পৌঁছাবে বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন। এর পাশাপাশি তিনি উল্লেখ করেছেন ফায়ার অডিট করা হচ্ছে প্রায় সময় করা হয়ে থাকে এবং দুইশ আড়াইশো করে ফায়ার অডিট করা হয় বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here