Home Politics বিধানসভায় সব্যসাচীর যোগদান নিয়ে বিজেপি ও তৃণমূলের নারদ-নারদ

বিধানসভায় সব্যসাচীর যোগদান নিয়ে বিজেপি ও তৃণমূলের নারদ-নারদ

SHARE

৯ই অক্টোবর ২০২১, ওয়েভ ইন্ডিয়া বাংলা , ওয়েব ডেস্ক :-পদ্ম সফর সেরে দু’বছর পর তৃণমূলে ফিরেছেন সব্যসাচী দত্ত। কিন্তু তাঁর যোগদানকে ঘিরে তৈরি হয়েছে নতুন বিতর্ক৷ বৃহস্পতিবার দুপুরে বিধানসভায় পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ঘরে সব্যসাচীর হাতে তুলে দেওয়া হয় তৃণমূলের পতাকা৷ বিধানসভার মধ্যে এভাবে দলীয় পতাকা ধরানো নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক৷ বিধানসভায় অধ্যক্ষের ঘরের পাশেই পরিষদীয় মন্ত্রীর ঘর৷ সেই ঘরেই সব্যসাচীর যোগদান নিয়ে তৃণমূলকে বিঁধেছে বিরোধী দলগুলি৷ সমালোচনার সুরে বিরোধী নেতাদের একাংশ জানিয়েছেন, তৃণমূল যে সংবিধান, গণতন্ত্র এসবের ধার ধারে না এতেই পরিষ্কার৷ গতকাল থেকেই বিরোধীদের নিশানায় রাজ্যের ফুল শিবির৷ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীও বিধানসভায় তৃণমূলের যোগদান অনুষ্ঠান নিয়ে সমালোচনা করেছেন৷ জানিয়েছেন, নজিরবিহীন ঘটনা৷ এতে বিধানসভার গরিমা নষ্ট হয়েছে৷ বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হবে৷ এর পাশাপাশি সাংবিধানিক প্রধানের কাছেও অভিযোগ জানাবে বিজেপি৷ রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কেও স্মারকলিপি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী৷

বিষয়টা নিয়ে বিজেপি এখানেই থেমে থাকবে না৷ আদালতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি পর্যন্ত দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা৷ শুভেন্দু অধিকারী বলেন, পুজোর পর আদালত খুললে জনস্বার্থ মামলা হবে৷ এদিকে বিরোধীদের সমালোচনাকে অত গুরুত্ব দিতে নারাজ তৃণমূল৷ অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, বিধানসভায় দলীয় অনুষ্ঠান আয়োজনে আইনত কোনও বাধা নেই৷ তবে যা ঘটেছে সেটা বাঞ্ছনীয় নয়৷ বিধানসভার মধ্যে বিজেপি নেতারা অনেক মিটিং করেন৷ বিধানসভার সদস্য না হওয়া সত্ত্বেও দিলীপ ঘোষ, সুকান্ত মজুমদাররা এসে বৈঠক করেছেন৷ তখন তো বিজেপি অনুমতি নেয়নি৷ একই বক্তব্য পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের৷ তিনিও জানিয়েছেন, এখানে আইনত কোনও বাধা নেই৷

 

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here