Home Politics মুখ্যমন্ত্রীর রোষের মুখেই কোচবিহারের এসপি বদল?

মুখ্যমন্ত্রীর রোষের মুখেই কোচবিহারের এসপি বদল?

SHARE

৬ই মে ২০২১, ওয়েভ ইন্ডিয়া বাংলা, ওয়েব ডেস্ক :-এসপিকে ফাঁসাতে হবে৷’ ভোট পর্ব চলাকালীন শীতলকুচি-কাণ্ডে বিজেপির তরফে প্রকাশ করা ভাইরাল অডিও ক্লিপে এমনটাই শোনা গিয়েছিল৷ এবার নির্বাচন মিটতেই সরিয়ে দেওয়া হল কোচবিহারের পুলিশ সুপার দেবাশিস ধরকে৷ তাঁর জায়গায় আসছেন কে কান্নন৷ তিনি এর আগে কোচবিহারের পুলিশ সুপারের দায়িত্ব সামলেছেন৷ নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার পরই নির্বাচন কমিশনের তরফে কে কান্ননকে অন্যত্র বদলি করে দেওয়া হয়৷ সেই জায়গায় নিয়ে আসা হয় দেবাশিস ধরকে৷ নির্বাচনের পালা মিটতেই দেবাশিস ধরকে পুলিশ সুপারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল৷ বুধবার একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান হয়৷ তবে দেবাশিসবাবুকে কোথায় পোস্টিং দেওয়া হয়েছে সে বিষয়ে বিজ্ঞপ্তিতে কোনও উল্লেখ নেই৷ দেবাশিস ধর বলেন, আমার ট্রান্সফার হচ্ছে৷ তবে কোথায় হচ্ছে জানা নেই৷ অন্যদিকে ভাইরাল হওয়া কল রেকর্ডিংয়ের প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি জানান, এবিষয়ে তাঁর কিছু জানা নেই৷

গত ১০ এপ্রিল কোচবিহারে চতুর্থ দফায় নির্বাচন হয়৷ সেদিন শীতলকুচিতে সিআরপিএফের গুলিতে প্রাণ হারান চারজন৷ সেই ঘটনার পর পুলিশ সুপার দেবাশিস ধর সাংবাদিকদের জানান, আত্মরক্ষার জন্যই গুলি চালিয়েছিল সিআরপিএফ৷ উত্তেজিত জনতা সিআরপিএফ-র উপর আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেছিল বলে পুলিশ সুপার জানিয়েছিলেন৷ এই ঘটনার পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কল রেকর্ড ভাইরাল হয়৷ যেখানে শোনা যায় ‘এসপিকে ফাঁসাতে হবে’৷ যদিও সেই কল রেকর্ডের সত্যতা যাচাই করেনি ওংকার বাংলা৷ সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ওই পুলিশ সুপারের বদলির বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট মহলে জলঘোলা হচ্ছে৷ এদিকে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হতেই কোচবিহার জেলাজুডে় ব্যাপক সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠছে৷ ইতিমধ্যেই প্রাণ হারিয়েছেন তিনজন৷ কয়েকশো বাডি়ঘর ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল-বিজেপি উভয় দলের বিরুদ্ধেই৷ এই ঘটনাগুলি নিয়েও বারবার পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যর্থতার অভিযোগ উঠেছে৷ সেই কারণেও পুলিশ সুপারকে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ মহলের একাংশ৷

 

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here