Home GENERAL ব্লাড ব্যাঙ্কে সক্রিয় দালাল চক্র হাতেনাতে পাকড়াও অভিযুক্ত

ব্লাড ব্যাঙ্কে সক্রিয় দালাল চক্র হাতেনাতে পাকড়াও অভিযুক্ত

SHARE

১৪ই সেপ্টেম্বর ২০২১, ওয়েভ ইন্ডিয়া বাংলা , ওয়েব ডেস্ক :-এক বোতল রক্তের দাম ৩ হাজার টাকা। দাবি মতো টাকা না দিলে সরকারি হাসপাতালের ব্লাড ব্যাঙ্ক থেকেই পাওয়া যাবে না রক্ত। জলপাইগুড়ি হাসপাতালে এসে দালালদের মুখে এ কথা শুনে রীতিমতো ঘাবড়ে যান হলদিবাড়ির এক বাসিন্দা। পরে ওই দালালদের হাতেনাতে পাকড়াও করে চলল জুতোপেটা। তুলে দেওয়া হল পুলিশের হাতে।

সরকারি হাসপাতালের ব্লাড ব্যাঙ্কে ফাদ পেতে বসেছিল দুই দালাল। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হলদিবাড়ি এলাকার বাসিন্দা স্বাধীনচন্দ্র রায় নামে ব্যক্তি তাঁর বোনের চিকিৎসার জন্য রক্তের খোঁজে জলপাইগুড়ি ব্লাড ব্যাঙ্কে আসেন। তিনি জানতে পারেন নির্দিষ্ট গ্রুপের ব্লাড এখানে রয়েছে। কিন্তু দালালরা তাঁকে বলে, তিন হাজার টাকা দিলে তবেই মিলবে এক বোতল রক্ত। জোরাজুরি করতে কিছুটা রোয়াব দেখিয়ে তারা বলে দেয়, ‘আগে টাকা জোগার করুন, তারপর রক্ত পাবেন।’ পাশাপাশি একটি ফোন নম্বরও দেয় সে, টাকা জোগার হলে তবেই যোগাযোগ করতে বলে।

এদিকে সাত-পাঁচ ভেবেও কোনও কুল না পেয়ে ফের একবার ওই দালালকে ফোন করে কম টাকা নেওয়ার আবেদন করেন। কিন্তু রাজি হয়নি সে। তবে ওই ফোনকল রেকর্ড করে স্বাধীনচন্দ্র যোগাযোগ করেন স্থানীয় একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে। এরপর ওই সংগঠনের সদস্যরা পুলিশকে গোটা বিষয়টি জানায়। অন্যদিকে সংগঠনের সদস্যরা এসে ওই দালালদের জুতো দিয়ে মারধর করে। পরে পুলিশ আসলে তাদের তুলে দেওয়া হয়। ঘটনায় স্বাধীনচন্দ্র রায় বলেন, ‘আমি কিছু আগে সংবাদমাধ্যমে দেখেছিলাম দালাল চক্রর খবর। এরা প্রস্তাব দিলে আমি বুঝে যাই। সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সম্পাদক অঙ্কুর দাস বলেন, ‘ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্তের আকাল। সেই সুযোগ নিয়ে ফের রক্তের দালাল চক্র সক্রিয় হয়েছে। আমরা তাদের হাতেনাতে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দিলাম।’ উল্লেখ, গত ১০ সেপ্টেম্বর ঠিক এই জায়গাতেই তৃণমূলের যুব নেতা এক দালালকে হাতেনাতে ধরেন। তার ঠিক চার দিনের মাথায় ফের দালাল ধরা পড়ায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।

 

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here