Home Home ক্ষোভে ফুঁসছেন পশুপ্রেমীরা কুকুরকে রাস্তায় ফেলে দড়িতে বেঁধে সাইকেলের গতি বাড়াল যুবক!

ক্ষোভে ফুঁসছেন পশুপ্রেমীরা কুকুরকে রাস্তায় ফেলে দড়িতে বেঁধে সাইকেলের গতি বাড়াল যুবক!

SHARE

২২শে আগস্ট ২০২১, ওয়েভ ইন্ডিয়া বাংলা , ওয়েব ডেস্ক :- একটি অসুস্থ পথ কুকুরের পিছনের দু’পায়ে দড়ি বেঁধে তাকে সাইকেলের বেঁধে রাস্তায় ফেলে হিড়হিড় করে টেনে নিয়ে যাচ্ছে যুবক। কেউ প্রতিবাদ করলে পাল্টা তুইতোকারি করে অশ্রাব্য গালাগাল তার। এদিকে রাস্তায় ঘষা খেয়ে ক্ষতবিক্ষত হচ্ছে কুকুরটির শরীর। এমনই অমানবিক ছবি সামাজিক মাধ্যমে মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়তেই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ এলাকায়।
জানা গিয়েছে, শনিবার বিকালে রায়গঞ্জের উদপুর এলাকায় একটি সাইকেলের কারিয়ারের সঙ্গে দড়ি বেঁধে দড়ির অন্য প্রান্তে একটি অসুস্থ কুকুরের পেছনের দু’পা বাঁধে এক যুবক। তার পর কুকুরটিকে রাস্তায় ফেলে টানতে টানতে সাইকেলের প্যাডেলে চাপ দেয় সে। বিষয়টি নজরে আসতেই এলাকার কতিপয় যুবক প্রতিবাদ করে। অভিযোগ, তাতে উল্টে সবাইকে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে ওই যুবক।
এভাবেই সাইকেলে বেঁধে রাস্তায় ঘষটাতে ঘষটাতে কুকুরটিকে নিয়ে চলে সে। স্থানীয়রা বারবার অসুস্থ কুকুরটিকে চিকিৎসার জন্য রেখে যেতে বললে তাতেও কর্ণপাতই করেনি ওই যুবক বলে অভিযোগ। উল্টে সে সাইকেলের গতি বাড়িয়ে দেয়। এমনই ঘটনায় রীতিমত তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শহরে।
এমনই অমানবিক দৃশ্য নজরে আসতেই ওই যুবকের ও কুকুরটির খোঁজ শুরু করেন পশুপ্রেমী সংগঠনের সদস্যরা। ওই যুবকের শাস্তির দাবীতে সরব হয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শী ও শহরের পশুপ্রেমীরা। পশুপ্রেমী সংগঠনের তরফে এই ঘটনায় জড়িত যুবকের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে সড়ব হয়েছেন। পশুপ্রেমী সংগঠনের পক্ষ থেকে পুলিশে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে জানানো হয়েছে।
এক প্রত্যক্ষদর্শীর বয়ান অনুযায়ী, এলাকার ছিন্নমস্তার কালী মন্দিরের পাশ দিয়ে একটা ছেলে কুকুরকে সাইকেলের কারিয়ারে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাস্তার সঙ্গে ঘেঁষে টেনে নিয়ে যাচ্ছিল। আমি ভিডিয়ো করেছি। তারপর স্যারকে ফোন করলাম। ছেলেটিকে এ নিয়ে বলতে গেলে সে বলে তোর বাবার জায়গা নাকি? ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক। পশুপ্রেমী সংগঠনের সদস্য গৌতম তান্ত্রিয়া বলেন, নেশাগ্রস্ত অবিবেচক ওই যুবকের চরম শাস্তি হোক। একটা নীরহ জীবের ওপর এমন নির্মম অত্যাচার কিছুতেই মেনে নেওয়া যায় না।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here